ট্রাষ্ট সম্পর্কিত

প্রথম আলোর সব সামাজিক কর্মকাণ্ডের সম্মিলিত রূপ প্রথম আলো ট্রাস্ট। ট্রাস্টের মূল উদ্যোক্তা প্রথম আলো। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ট্রাস্ট অ্যাক্ট অনুযায়ী ২০০৯ সালের মে মাসে প্রথম আলো ট্রাস্ট গঠিত হয়। এটি একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। ট্রাস্টিরা এ প্রতিষ্ঠান থেকে কোনো সুবিধা নেন না। জনসাধারণ এবং বিভিন্ন কল্যাণকামী প্রতিষ্ঠানের আর্থিক সহযোগিতায় পরিচালিত হয় প্রথম আলো ট্রাস্ট। প্রথম আলোর দেশব্যাপী সকল প্রতিনিধি এবং বন্ধুসভার সদস্যরা এর সব কর্মকাণ্ডে সরাসরি সহযোগিতা করে থাকেন।

লক্ষ্য

সম্পূর্ণ অলাভজনক এই ট্রাস্ট কাজ করতে চায় এমন সব মানুষের মধ্যে, অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্যোগ বা দুরবস্থা যাদের আশা ও স্বপ্ন মুছে দেয়। এই ট্রাস্ট কাজ করতে চায় অ্যাসিড-সন্ত্রাসে বিপর্যস্ত নারী, মাদকাসক্ত যুবসমাজ, অর্থকষ্টে জর্জরিত অদম্য মেধাবী ছাত্রছাত্রী এবং সত্য উদ্ঘাটনে ব্রতী নির্যাতিত সাংবাদিকদের মধ্যে। এই ট্রাস্ট চায়, তাদের উদ্যোগ ও সহযোগিতায় দেশ থেকে এসিড-সন্ত্রাস মুছে যাক, মাদক ছেড়ে উদ্দীপিত আশাবাদে এগিয়ে যাক তরুণ-তরুণীরা, দারিদ্র্যপীড়িত অদম্য মেধাবী তার অপরাজেয় স্বপ্নে জয় করুক পৃথিবী, প্রাকৃতিক দুর্যোগ পেছনে ফেলে জীবন বয়ে চলুক তার অদম্য ছন্দে। এই ট্রাস্ট চায় দেশের মানুষের মুখের অমলিন হাসিটা ধরে রাখতে।

‘প্রথম আলো ট্রাস্ট’ পীড়িত, হতাশ ও দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে ফিরিয়ে দিতে চায় সেই স্বপ্ন, সাহস ও আত্মবিশ্বাস; যাতে তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে।

উদ্দেশ্য

  • অ্যাসিড সন্ত্রাস নির্মূল করা। আর একটি মুখও যেন এসিডে ঝলসে না যায়।
  • ‘মাদককে না বলো’। মাদক ছেড়ে কিশোর ও তরুণেরা যেন বেড়ে উঠতে পারে আলোকিত ভবিষ্যতের দিকে।
  • মেধাবী ছাত্রছাত্রীর শিক্ষাজীবনে দারিদ্র্য যেন অভিশাপ হয়ে না ওঠে।
  • প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেন স্থবির না করে দেয় স্বাভাবিক জীবন।
  • নির্যাতন যেন টলিয়ে দিতে না পারে সাংবাদিকের সত্যানুসন্ধান।

এসবের বাইরেও দেশের মানুষের জরুরি যেকোনো প্রয়োজনে সাড়া দিতে এ ট্রাস্ট উন্মুখ।